এফডিসিতে পাঁচটি গরু কোরবানি দেবেন পরীমনি

20

বিনোদন ডেস্ক:
রঙিন পর্দায় শিল্পীদের অভিনয় দেখে দর্শক বিনোদিত হন। মনে হয়, রঙিন পর্দার মতোই তাদের বাস্তব জীবনও। কিন্তু ক’জন শিল্পীর বাস্তব জীবন রঙিন? পর্দায় হাস্য-রসাত্মক দৃশ্যের আড়ালে অনেক শিল্পী-কলাকুশলী মানবেতর জীবন-যাপন করতে বাধ্য হন। অনেকেই হয়তো বিষয়টি জানেন না। প্রদীপের নিচে অন্ধকার বিষয়টি উপলব্ধি করেছেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। এই উপলব্ধি থেকেই ২০১৬ সালে বিএফডিসিতে গরু কোরবানি দেওয়া শুরু করেন পরীমনি। প্রথমবার একটি গরু কোরবানি দেন তিনি। সেই ইচ্ছে থেকেই প্রতিবছর প্রিয় কর্মস্থল বিএফডিসিতে কোরবানি দিচ্ছেন। ২০১৭ সালে দুটি, ২০১৮ সালে তিনটি এবং ২০১৯ সালে চারটি গরু কোরবানি দেন এই নায়িকা। এবার পাঁচটি গরু কোরবানি দেবেন পরীমনি। এমনটাই জানান এই নায়িকা।
পরীমনি বলেন, ‘কোরবানির ঈদ সবসময় নানু বাড়িতে করতাম। আমি জানতাম না চলচ্চিত্রের অনেক কলাকুশলী এভাবে মানবেতর জীবন-যাপন করেন। জানার পর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে এফডিসিতে কোরবানি দিই। যারা কোরবানি দিতে পারেননি, তাদের জন্যই এই উদ্যোগ। এফডিসিও আমার একটি পরিবার। এই পরিবারে সবার সঙ্গে কোরবানি দিতে পেরে ভালো লাগছে। কাজটি করে আনন্দ পেয়েছি। যতদিন বেঁচে থাকবো এফডিসিতে কোরবানি দেব। তবে এবার সর্তকতার সঙ্গে কোরবানি দেব। বিশেষ করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গরু কাটা ও মাংস বিতরণ করবো।’ এক সময় শিল্পী কলা-কুশলীরা ব্যস্ত সময় পার করেছেন। তখন কাজের অভাব ছিল না। কিন্তু করোনার কারণে কর্মহীন হওয়ায় তাদের অনেকেই মানবেতর জীবনযাপন করছেন।