ইমানের অন্যতম বৈশিষ্ট্য লজ্জা

7

ধর্ম ডেস্ক: হজরত রাসুলুল্লাহর (সা.) বর্ণিত হাদিসে লজ্জাকে ইমানের শাখা বলা হয়েছে। দুনিয়ায় বিদ্যমান সব ধর্ম ও সংস্কৃতিতেই লজ্জার প্রতি গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। লজ্জাহীনতাকে সর্বদাই দেখা হয় নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিতে। তবে ইসলাম লজ্জাশীলতাকে একটু বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকে। কারণ রাসুলুল্লাহ (সা.) ইমানের অনেক বৈশিষ্ট্যের মধ্যে ‘লজ্জা’কে আলাদা করে বিশেষভাবে তুলে ধরেছেন। এভাবে লজ্জার প্রসঙ্গ উল্লেখ করার কারণ হলো, ব্যক্তিগত পর্যায় থেকে শুরু করে সামাজিক ও ধর্মীয় দৃষ্টিতে যা অসুন্দর, অপ্রীতিকর, অযথার্থ কিংবা অগ্রহণযোগ্য -মানুষকে তা করা থেকে বিরত রাখা। লজ্জা শুধু বস্তুগত নয় কিংবা দেহাবরণের নাম নয়, লজ্জা মানুষের অভ্যন্তরীণ সংযমের অপর নাম। বস্তুত মানুষের সঙ্গে যথাযথ আচরণ বজায় রাখা এবং সমাজে সঠিক মূল্যবোধ তুলে ধরার ক্ষেত্রে লজ্জাশীলতার কোনো বিকল্প নেই। ইসলাম যে ধরনের লজ্জাকে উৎসাহ জুগিয়ে থাকে, তা ব্যক্তির কার্যকলাপে সর্বদাই প্রতিফলিত হয়।