আল্লাহ তায়ালা মনের খবর জানেন

185

ধর্ম ডেস্ক: আল্লাহ তায়ালা মানুষের মনের খবর জানেন। মানুষের প্রতিটি বিষয় সম্পর্কে অবগত। মানুষের মনের গহিনে লুপ্ত এবং অপ্রকাশিত প্রতিটি প্রয়োজনও আল্লাহ জানেন। কারণ তিনি মহাজ্ঞানী, সবার চেয়ে তুলনাহীন জ্ঞাত। তিনি অনুমান ও ধারণার ভিত্তিতে কোনো কথা বলেন না। তিনি প্রতিটি বস্তু সম্পর্কে সরাসরি জ্ঞানের অধিকারী। একমাত্র তিনিই জানেন, কোন জিনিসে মানুষের উন্নতি এবং মানুষের কল্যাণের জন্য কোন নীতিমালা, আইনকানুন ও বিধিনিষেধ আবশ্যক। তাঁর প্রতিটি শিক্ষা সঠিক, কৌশল ও জ্ঞানভিত্তিক যার মধ্যে ভুল-ভ্রান্তির কোনো সম্ভাবনা নেই। অবশ্যই আল্লাহ অন্তরের গোপন কথাও জানেন। বিভিন্ন অনুগ্রহের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে আল্লাহ যখন বলবেন, ‘হে মরিয়মপুত্র ঈসা! তুমি কি লোকদের বলেছিলে, ‘আল্লাহকে বাদ দিয়ে আমাকে ও আমার মাকে ইলাহ হিসেবে গ্রহণ করো?’ তখন তিনি জবাব দেবেন, ‘সুবহানাল্লাহ! যে কথা বলার কোনো অধিকার আমার ছিল না সে ধরনের কোনো কথা বলা আমার জন্য অশোভন ও অসঙ্গত। যদি আমি এমন কথা বলতাম তাহলে আপনি নিশ্চয়ই তা জানতে পারতেন, আমার মনে যা আছে আপনি জানেন কিন্তু আপনার মনে যা আছে আমি তা জানি না, আপনি তো সব গোপন সত্যের জ্ঞান রাখেন।’ (সূরা মায়িদা: আয়াত ১১৬)। আল্লাহ আলিমুল গায়েব বা সর্বপ্রকার অদৃশ্য বস্তুর জ্ঞান তিনি রাখেন। হজরত ঈসা (আ.)-এর জবাব থেকেই এর সুস্পষ্ট ধারণা আমরা পাই। মানুষের মনের অন্ধকার কুঠুরিতে কী আছে, আল্লাহর কাছে তা দিবালোকের মতোই সুস্পষ্ট। আল্লাহ মহাজ্ঞানী ও মহাবিজ্ঞ। সুতরাং জ্ঞান ও বিজ্ঞতার দাবি হলো, যাকে জ্ঞান-বুদ্ধি দান করা হবে তাকে তার কাজের জন্য দায়ীও করা হবে। তার জ্ঞান ও বুদ্ধি কোন কাজে কীভাবে ব্যবহার করেছে তা মহাজ্ঞানীর নখদর্পণে আছে। মানুষ, জিন, ফেরেশতা বা অন্য সব সৃষ্টির জ্ঞানই অপূর্ণ ও সীমিত। পুরো সৃষ্টির ব্যবস্থাপনা এবং এর অন্তর্নিহিত কার্যকারণ ও ফলাফল বোঝার মতো জ্ঞান কারো নেই। সৃষ্টিজগতের সব সত্য ও রহস্য কারো দৃষ্টিসীমার মধ্যে নেই। পুরো সৃষ্টিজগতের প্রভু ও পরিচালক মহান আল্লাহই পুরোপুরি জ্ঞান রাখেন। সবক্ষেত্রে জ্ঞানের মূল উৎস মহান আল্লাহর হেদায়েত ও পথনির্দেশনার ওপর আস্থা স্থাপন করা ছাড়া মানুষের আর কোনো পথ নেই।