আলমডাঙ্গার হাপানিয়ার জয়নাল হত্যা মামলায় চিৎলা ইউপি চেয়ারম্যান

256

জিল্লুর রহমান জামিনে মুক্ত : মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা
নিজস্ব প্রতিবেদক: চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গার হাপানিয়া গ্রামে একটি হত্যা মামলার আসামী চিৎলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান জামিনে মুক্ত পেয়েছেন। গতকাল বুধবার তিনি জামিনে মুক্তি পেলে বিকাল ৫টার দিকে তাকে জেল গেট থেকে অভ্যর্থনা জানিয়ে দলীয় নেতা-কর্মিরা মোটরসাইকেল বহর বের করে। এর আগে গত সোমবার জিল্লুর রহমান চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা আমলী আদালতে আত্মসর্মপণ করে জামিন চান। কিন্তু বিচারক মো. মুস্তাফিজুর রহমান জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। জানা যায়, আলমডাঙ্গা উপজেলার হাপানিয়া গ্রামে গত ঈদুল আযহার নামাজ শেষে স্থানীয় ইউপি সদস্য বক্তব্য দেয়া নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে দুই দলের সদস্যরা ধারালো অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। চালানো হয় বোমা ও গুলি। এ ঘটনায় জয়নাল নামের একজন নিহত হন। এ ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমানসহ আরো ২৮ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। গত সোমবার তিনি আদালতে হাজির হয়ে জামিন চাইলে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠায়। এর দুই দিন পর বুধবার তিনি জামিনে মুক্তি পান। তাকে জেল গেট থেকে অভ্যর্থনা জানিয়ে দলীয় নেতা-কর্মিরা মোটরসাইকেল বহর বের করে চুয়াডাঙ্গা পৌরসভা কার্যালয়ে যায়। এসময় জেলা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক পৌর মেয়র ওবায়দুর রহমান চৌধুরি জিপু তাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। মোটরসাইকেল বহরে উপস্থিত ছিলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা কৃষকলীগের সভাপতি ও মোমিনপুর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ফারুক জোয়ার্দ্দার, সহ-সভাপতি তৌহিদুর রহমান চন্দন, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান কবির, প্রচার সম্পাদক মহাসীন রেজা, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জানিফ, জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শরীফ হোসেন দুদু, এড. তসলিম উদ্দিন ফিরোজ, পৌর কৃষকলীগের সেক্রেটারী আরিফুল ইসলাম, আলমডাঙ্গা থানা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুদুর রশিদ মাসুদ, ডা. আফসার উদ্দীন ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মাহাবুল ইসলাম সেলিম, স্বপন, শাহীন, দয়াল, রাকু, রাব্বি, রানা, জাহিদ, সজল, মিলন, সাইফুল, মইনুল, রাকিব প্রমুখ।