‘আমি ভীত নই, আত্মবিশ্বাসী’

47

খেলাধুলা প্রতিবেদন
শারীরিক অবস্থা খারাপ হয়ে যাওয়ায় কিংবদন্তি ফুটলার পেলে ঘর থেকে বের হতে লজ্জা পান- সম্প্রতি এমন মন্তব্য করেছেন তার ছেলে এডিনহো। তবে পেলে জানালেন তিনি মোটেও ভীত নন। সংবাদমাধ্যমকে তিনবারের বিশ্বকাপ জয়ী তারকা পেলে বলেন, ‘কিছুদিন আমার ভালো যায়, কিছুদিন খারাপ। আমার বয়সী মানুষের জন্য এটা স্বাভাবিক। তবে আমি ভীত নই। আমি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ, ও নিজের কাজে আত্মবিশ্বাসী।’ বৃটিশ সংবাদ সংস্থা বিবিসি জানিয়েছে, এ বছরের জানুয়ারিতে খুব ব্যস্ত সময় কেটেছে ৭৯ বছর বয়সী পেলের। এছাড়া এখন পেলের ফুটবল ক্যারিয়ার নিয়ে একটি প্রামাণ্যচিত্রের কাজ চলছে। প্রামাণ্যচিত্রটি বানাচ্ছেন এক বৃটিশ ডিরেক্টর। তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করে যাচ্ছেন পেলে। ব্রাজিলের ১৯৫৮, ১৯৬২ ও ১৯৭০ বিশ্বকাপের নায়ক বলেন, ‘আমার ব্যস্ত সূচিতে যেসব চুক্তি রয়েছে তার কোনোটিই এড়িয়ে যাচ্ছি না আমি।’ পেলের ছেলে এডিনহো গত সপ্তাহে জানান, তার বাবার নিতম্বে সমস্যা দেখা দিয়েছে। স্বাভাবিকভাবে হাঁটতে পারছেন না। চলতে-ফিরতে হুইল চেয়ার লাগছে। ব্রাজিলের গ্লোবো টিভিকে এডিনহো বলেন, ‘তিনি বাইরে বের হতে খুব লজ্জা পান। অথবা বাড়ির বাইরে গিয়ে করতে হয় এমন বিষয় এড়িয়ে চলেন। ভাবুন, ফুটবলের রাজা এখন ঠিকমত হাঁটতেও পারছেন না।তার শরীর খুবই ভেঙে পড়েছে। নিতম্বে একবার সার্জারি করা হয়েছিল। কিন্তু পুনর্বাসন ঠিকঠাক মতো হয়নি। সমস্যা রয়েই গেছে। এখন চলতে ফিরতে সমস্যা হয়। আর বিষয়টা তার হতাশার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।’ ফুটবলের ইতিহাসের সর্বকালের সেরা ফুটবলার বলা হয় পেলেকে। ২১ বছরের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে ১২৮১ গোল করেছেন তিনি। এর মধ্যে ব্রাজিলের হয়ে ৯১ ম্যাচে করেছেন ৭৭ গোল।