আন্দুলবাড়ীয়ায় ত্রাণসামগ্রী বিতরণকালে নজরুল মল্লিক কাউকে না খেয়ে থাকতে দেব না

20

নিজস্ব প্রতিবেদক:
‘এখন হয়ত করোনা বিশ্বে আতঙ্ক। কিন্তু আপনারা যদি সরকারি নির্দেশনা মেনে আর মাত্র কিছুদিন ঘরে থাকেন, তাহলে অবশ্যই অতিদ্রুতই এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ সম্ভব হবে। আওয়ামী লীগ সরকার সব সময় মানুষের পাশে ছিল, থাকবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীকে নির্দেশনা দিচ্ছেন। আপনারা ঘরেই থাকুন, খাবার আমি পৌছে দেব। কেউ না খেয়ে থাকবে না। চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের দায়িত্ব আমার। প্রধানমন্ত্রীর আহ্বানে সাড়া দিয়ে আমি আপনাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। আমি যতক্ষণ আছি, আপনাদের চিন্তা করার প্রয়োজন নেই। আমাকে জানান। কাউকে না খেয়ে থাকতে দেব না।’
জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের ১ ও ২ নম্বর ওয়ার্ডসহ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে এসব কথা বলেন চুয়াডাঙ্গা জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি নজরুল মল্লিক। পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে গোটা রমজান মাসেই গরীব-দুঃখী অসহায় মানুষকে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছেন তিনি।

প্রতিদিনের ন্যায় গতকাল শনিবার (১৬ মে) সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত নিজে ঘুরে ঘুরে বাড়ি বাড়ি গিয়ে তিনি নিজ তহবিল থেকে করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন হয়ে পড়া অসহায় দরিদ্র মানুষের মধ্যে চাল, ডাল, তেল, ছোলা এবং স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য মাস্ক বিতরণ করেন তিনি।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন জীবননগর হাসাদার খালেক, জীবননগর উপজেলা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মিজা, দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক আবু তালেব, আন্দুলবাড়িয়া ইউনিয়নের মকলেচুর রহমান টজো, যুবলীগ নেতা মইনুল ইসলাম, রিপন, খাজা, মইনুর, রিপন, হাবিবুর মল্লিক, শাহবে মল্লিক, উজিরপুরের শাহিন, সুটিয়ার রিয়াজ, আট কবরের আক্তার হোসেন, জীবননগরের মেহেদি হাসান, পারকেষ্টúুর যুবলীগের রাশেদ, মমদনা ও পাঠান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক ইসমাইল হোসেন, তেঁতুল ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা আরিফুল ও সানোয়র প্রমুখ।