আইনুর হোসেন পচার ইন্তেকাল; দাফন সম্পন্ন, শোক

182

চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির সাবেক দপ্তর সম্পাদক ও সাবেক কাউন্সিলর
বিশেষ প্রতিবেদক:
চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির সাবেক দপ্তর সম্পাদক ও চুয়াডাঙ্গা পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বর আইনুর হোসেন পচা ইন্তেকাল করেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন। গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর মিরপুর আল হেলাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭০ বছর। মৃত্যুকালে তিনি রেখে গেছেন স্ত্রী, পুত্র-কন্যা, আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব, পাড়া প্রতিবেশীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী। পরিবার জানায়, তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ হৃদরোগসহ নানা রোগে ভুগছিলেন। গত বুধবার উন্নত চিকিৎসার উদ্দেশ্যে পুত্র জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সজিব মালিকের সঙ্গে ঢাকায় যান। এরপর সেখানকার চিকিৎসকদের পরামর্শে আল হেলাল হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। এ অবস্থায় শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। এরপর দুপুর ১২টায় ঢাকা থেকে চুয়াডাঙ্গা কেদারগঞ্জস্থ বাসভবনের উদ্দেশ্যে নেওয়া হয় তাঁর মরদেহ। রাতে এশার নামাজের পর কেদারগঞ্জ জামে মসজিদে জানাজা শেষে জান্নাতুল মওলা কবরস্থানে তাঁর দাফনকার্য সম্পন্ন করা হয়।
এদিকে, তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করে পৃথক শোকবার্তা দিয়েছে জেলা বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, জাসাস ও ছাত্রদল। জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য, চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে বিএনপি মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী মো. শরীফুজ্জামান শরীফ, সিরাজুল ইসলাম মনি ও আবু বক্কর সিদ্দিক আবু এক শোকবার্তায় বলেন, ‘জেলা বিএনপির সাবেক দপ্তর সম্পাদক ও চুয়াডাঙ্গা পৌর সভার সাবেক কাউন্সিলর আইনুর হোসেন পচার মৃত্যু দলের কাছে অপূরণীয় ক্ষতি। দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে এমনিতেই আমরা গভীর শূণ্যতায় দিনাতিপাত করছি। দলের এ কঠিন দুঃসময়ে তাঁর মৃত্যুতে চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপি শোকস্তব্ধ। আমরা তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনাসহ শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করছি।’
জেলা যুবদলের শোক:
জেলা যুবদলের দপ্তর সম্পাদক মামুন উর-রশিদ টনিক প্রেরিত এক শোকবার্তায় বলা হয়, ‘তাঁর মতো একজন দেশপ্রেমিকের মৃত্যুতে দেশ হারাল একজন আদর্শবান রাজনীতিবিদ। বিএনপি হারাল একজন দক্ষ সংগঠক। তাঁর এ শূণ্যতা অপূরণীয়। আমরা চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবদলের পক্ষ থেকে মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি এবং তাঁর শোকাহত পরিবরের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। মহান আল্লাহ তায়ালা মরহুমকে জান্নাতের উচু মাকাম দান করুন।’
জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের শোক:
জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সভাপতি শফিকুল ইসলাম পিটু ও সাধারণ সম্পাদক এম এ তালহা এক শোকবার্তায় বলেন, ‘চুয়াডাঙ্গা জেলা বিএনপির দুঃসময়ের কা-ারি আইনুর হোসেন পচা। দলকে সুসংগঠিত রাখতে তাঁর ভূমিকা ছিল অগ্রগণ্য। তাঁর অকাল প্রয়াণে জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সব নেতাকর্মী শোকস্তব্ধ। আমরা তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনাসহ শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করছি।’
জেলা ছাত্রদলের শোক:
জেলা ছাত্রদলের সভাপতি শাহজাহান খান ও সাধারণ সম্পাদক মোমিন মালিতা এক শোক বিবৃতিতে বলেন, ‘আইনুল হোসেন পচা ছিলেন জাতীয়তাবাদী শক্তির অন্যতম বাহক। তিনি ছিলেন একজন সংগ্রামী মানুষ। বিএনপির এ বর্ষীয়ান নেতাকে হারিয়ে বিএনপি একজন পরিক্ষিত অভিভাবককে হারাল। মরহুম আইনুর হোসেন পচার শূণ্যতা কখনও পূরণ হবে না। আমরা তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।’
আরও শোক প্রকাশ করেছেন জেলা ওলামা দলের যুগ্ম আহ্বায়ক মাওলানা মাহবুবুর রহমান ও সদস্যসচিব মাওলানা আনোয়ার হোসেন, জেলা জাসাসের সাধারণ সম্পাদক সেলিমুল হাবীব সেলিম প্রমুখ।