অফিস সকালে, সাব-রেজিস্ট্রার আসলেন বিকেলে!

139

আলমডাঙ্গা অফিস:
সকাল নয়টার পরিবর্তে বিকেল পাঁচটায় আলমডাঙ্গার সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে পৌঁছালেন। এমন ঘটনা নিত্যদিনের। সাব-রেজিস্ট্রারের এত বিলম্বে অফিসে আসার কারণে ব্যাপক জনদুর্ভোগের সৃষ্টি হচ্ছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যার আগে তিনি অফিসে উপস্থিত হলে জমি ক্রয়-বিক্রয় করতে আসা দূর-দূরান্তের মানুষের মধ্যে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তাঁরা প্রতিকার দাবি করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কাছে। এ অভিযোগের ভিত্তিতে আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিসদের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন ও ইউএনও মো. লিটন আলী গতকাল সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে গিয়ে সাব রেজিস্ট্রারকে ভবিষ্যতে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয়, এমন কাজ না করার জন্য সতর্ক করে দেন।
জানা গেছে, আলমডাঙ্গায় গতকাল সোমবার ছিল রেজিস্ট্রি কার্যক্রমের দিন। উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার মামুন বাবর বিকেল পাঁচটা বাজলেও অফিসে না আসায় প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে জমি রেজিস্ট্রি করতে আসা শত শত মানুষ চরম দুর্ভোগে পড়েন। ভুক্তভোগীরা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন ও ইউএনও মো. লিটন আলীকে বিষয়টি অবহিত করলে তাঁরা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে যান। তখনও সাব-রেজিস্ট্রার অনুপস্থিত ছিলেন। কিছু সময় সেখানে থাকার পর তাঁরা ফিরে যান। এদিকে পৌনে ছয়টার দিকে সাব রেজিস্ট্রার মামুন বাবর রেজিস্ট্রি অফিসে পৌঁছালে আবারও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউএনও তাঁর অফিসে উপস্থিত হন। তাঁরা সাব-রেজিস্ট্রারকে বিলম্বে আসার কারণ জানতে চান। সে সময় সাব-রেজিস্ট্রার মামুন বাবর ঢাকা থেকে আসতে ফেরিতে বিলম্ব হয়েছে জানিয়ে ভবিষ্যতে এমন হবে না বলে অঙ্গীকার করেন।
বিলম্বে অফিসে আসার বিষয়ে আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন বলেন, ‘সাব-রেজিস্ট্রার সকাল ৯টা থেকে বেলা ৩টা পর্যন্ত অফিস করবেন বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও আমার সামনে ওয়াদা করেছেন। পূর্বেও একবার তিনি দেরি করে আসার বিষয়ে আমার নিকট এমন ওয়াদা করেছিলেন। এবার দেখা যাক অঙ্গীকার ঠিক রাখেন কি না। যদি আবারও অঙ্গীকার ভঙ্গ করেন, তাহলে প্রশাসনিকভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. লিটন আলী জানান, ভবিষ্যতে অফিসে আসতে আর বিলম্ব হবে না এই অঙ্গীকার করেছেন সাব-রেজিস্ট্রার। তারপরও তিনি বিলম্ব করলে তাঁকে অফিসে ঢুকতে দেওয়া হবে না। তাঁর বিরুদ্ধে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ পাঠানো হবে।